অনুপ্রেরণা – ১

“যে মানুষটাকে ভালোবাসি, তাকে আমাদের অবশ্যই বুঝতে হবে। আমাদের ভালোবাসা যদি হয় কেবল কাউকে দখল করে রাখার কোন চাওয়া, তাহলে তা ভালোবাসা নয়। আমরা যদি শুধু আমাদেরকে নিয়ে চিন্তা করি, শুধু আমাদের প্রয়োজনগুলোই বুঝি এবং অন্যদের প্রয়োজনকে এড়িয়ে যাই, তাহলে আমরা কখনই ভালোবাসতে পারবো না। যাদের ভালোবাসি তাদের প্রয়োজন, চাওয়া, ভালোলাগা এবং কষ্টগুলো আমাদেরকে অবশ্যই গভীরভাবে খেয়াল করতে। এটাই প্রকৃত ভালোবাসার পথ। আপনি যখন কাউকে সত্যিকার অর্থে বুঝতে পারবেন, তখন তাকে ক্রমাগত ভালোবেসে যাওয়া থেকে আপনি নিজেকে ঠেকাতে পারবেন না।” [গ্রন্থ : Peace Is Every Step: The Path of Mindfulness in Everyday Life]

* * *
“আপনাকে যারা ভালোবাসে তারা আপনার করা ভুলগুলো অথবা আপনার বাজে স্মৃতিগুলোকে মনে রাখার বোকামি করবে না। আপনাকে যখন দেখতে খারাপ লাগে তখন তারা আপনার সৌন্দর্যকে স্মরণ রাখে, আপনি যখন ভেঙ্গে পড়েন তখন আপনার পূর্ণতার সময়গুলোকে মনে রাখে, আপনি যখন অপরাধবোধে ভুগেন তখন আপনার সরলতাকে খেয়ালে রাখে এবং আপনি যখন দ্বিধায় থাকেন তখন আপনার উদ্দেশ্যকে মনে রাখে। [অ্যালান কোহেনের উদ্ধৃতির ভাবানুবাদ]

* * *
জীবনের যেসব বিষয় নিয়ে হিসাব-নিকাশ মেলেনি, সেগুলোর ব্যাপারে ধৈর্য ধরুন। সেই উত্তর-না-পাওয়া প্রশ্নগুলোকেই ভালোবাসতে চেষ্টা করুন, যেমন করে আপনি গ্রহণ করে থাকেন বন্ধ দরজার একটি ঘর অথবা ভিনদেশি ভাষায় লেখা কোন একটা বই। এখনই সব উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত হবেন না। আপনাকে সেই প্রশ্নগুলোর উত্তর এখন দেয়া হবে না কেননা সেসব জেনে আপনি ঠিকভাবে বাঁচতে পারবেন না। তাছাড়া, এই বিষয়গুলো হলো অভিজ্ঞতার পথ দিয়ে যাওয়া। জীবনের এই দিনগুলোতে আপনার এই প্রশ্নগুলো বুকে নিয়েই বাঁচতে হবে। হয়ত, সময়ের সাথে কোন একদিন, আপনি নিজের অজান্তেই ধীরে ধীরে প্রশ্নগুলোর উত্তর জেনে যাবেন। [রেইনার রিলকার ‘Letters To A Young Poet’ থেকে উদ্ধৃত অংশের ভাবানুবাদ]

* * *
যারা আপনাকে সাধারণ কিছু স্নিগ্ধ ও শান্ত কথা বলে একটুখানি স্বস্তি এনে দিতে চেষ্টা করেন, তাদের দেখে  এমনটা ভেবে বসবেন না যে তাদের জীবনটা যন্ত্রণাবিহীন। তার জীবনেও দুঃখ-কষ্ট এবং যন্ত্রণা থাকতে পারে যা হয়ত আপনার চাইতেও বেশি। যদি তেমনটা না-ই হতো, তাহলে তিনি এমন কিছু শব্দ কখনো খুঁজে পেতেন না।
~ রেইনার রিলকা [অস্ট্রিয়ান ঔপন্যাসিক, ১৮৭৫-১৯২৬]

* * *
“চারপাশে অনেক ঘৃণার মাঝে আমি আমার ভেতরে এক অপরাজেয় ভালোবাসাকে খুঁজে পেয়েছি। অনেক অশ্রুধারার মাঝে আমি নিজের ভেতরে এক প্রশান্তিকে খুঁজে পেয়েছি। তীব্র শীতের মাঝে আমি খুঁজে পেয়েছি আমার ভেতরে এক অপরাজেয় গ্রীষ্মকাল ছিলো, যা আমাকে সুখী করেছে। এগুলো উপলব্ধি আমাকে মনে করিয়ে দিয়েছে, এই পৃথিবী আমাকে যতই চাপ দিয়ে পিষ্ট করতে চেষ্টা করুক না কেন, আমার ভেতরে তার চেয়ে শক্তিশালী কিছু রয়েছে যা সেই তাকে আপন শক্তিতে ফিরিয়ে দিচ্ছে।” [আলবার্ট কামুসের উদ্ধৃতি অনুসরণে]

* * *
আপনি যেমন ঠিক তেমন করেই আরেকজনকে ভালোবাসতে দিন — থাকুক না আপনার খুঁতগুলো, কিংবা নিজেকে অনাকর্ষণীয় মনে হওয়া কিংবা নিজেকে অসম্পূর্ণ মনে করা। হয়ত ভেবেছেন নিখুঁত হতে পারেননি বলে হয়ত আপনাকে কেউ ভালোবাসতে পারবে না, আর সেই কারণে আপনার খুঁতগুলোকে অবশ্যই ঢেকে রাখতে হবে। এমন বিশ্বাসের সাথে তো তুলনা চলে সেই বিশ্বাসের যাতে মনে করা হয় সূর্যের আলো এসে ভাঙ্গা জানালা দিয়ে ঘরে ঢুকে অন্ধকার ঘরকে আলোকিত করতে পারবে না। [মার্ক হ্যাকের উদ্ধৃতির অবলম্বনে]

* * *
অসাধারণ আর চমৎকার মানুষ হিসেবে আমরা তাদেরকেই পাই যারা জীবনে পরাজিত হয়েছেন, দুঃখ-কষ্টে ভুগেছেন, জীবনযুদ্ধে ধুঁকেছেন, অনেক কিছু হারিয়েছেন; যারা শত কষ্ট ও প্রতিবন্ধকতায় জীবনকে গভীর থেকে উপলব্ধি করেছেন। তাদের থাকে জীবনের প্রতি ভালোবাসা, স্পর্শকাতরতা, থাকে গভীর জীবনবোধ, ভাঙ্গাকে গড়ে নেয়ার প্রতি আর্তি যা তাদেরকে সহানুভূতিশীল, বিনয়ী, নম্র, দয়ার্দ্র এবং অন্যের কষ্টের ব্যাপারে সচেতন করে তোলে। অসাধারণ আর সুন্দর মানুষেরা আপনা আপনিই তৈরি হয়ে যায় না। [Elisabeth Kubler-Ross-এর উদ্ধৃতির আলোকে]

* * *
“কখনো ব্যর্থ না হবার মাঝে নয়, বরং প্রতিটি ব্যর্থতার পরে উঠে দাঁড়ানোর মাঝেই আমাদের গৌরব লুকিয়ে থাকে।”~ কনফুসিয়াস

* * *
“চিন্তাগুলোর ব্যাপারে সচেতন হোন, আপনার চিন্তা মুখের কথায় পরিণত হয়,
মুখের কথার ব্যাপারে সচেতন হোন, আপনার কথা কাজে পরিণত হয়,
কাজগুলোর ব্যাপারে সচেতন হোন, আপনার কাজ স্বভাবে পরিণত হয়,
স্বভাবের ব্যাপারে সচেতন হোন, আপনার স্বভাব চরিত্রে পরিণত হয়,
চরিত্রের ব্যাপারে সচেতন হোন, কেননা তা আপনার ভবিষ্যত নির্ধারণ করে দেবে।”
~  লাও যু, প্রাচীন চৈনিক দার্শনিক [খ্রিষ্টপূর্ব ৬ষ্ঠ শতক]

* * *
“যারা কথা বলে তারা জানে না, যারা জানে তারা কথা বলে না।”~ প্রাচীন চৈনিক দার্শনিক লাও-যু

* * *
“চরিত্র গড়েই উঠে পছন্দ থেকে। দিনের পর দিন, আপনি যা পছন্দ করেন,চিন্তা করেন এবং যেঁ কাজগুলো করেন  — তা আপনাকে গড়তে থাকে, একদিন তা ‘আপনি’তে পরিণত হয়।” ~ হেরাক্লিটাস

* * *
“আমি যখন জীবনের পেছনে ফিরে তাকাই, আমি উপলব্ধি করি যতবার ভেবেছিলাম আমি কোন ভালো কিছুর প্রাপ্তি থেকে বঞ্চিত হচ্ছি, আমাকে আসলে আরো বেশি ভালো কিছুর দিকে ঘুরিয়ে দেয়া হচ্ছিলো। ~স্টিভ মারাবোলি

* * *
এমন এক ভালোবাসাতে বিশ্বাস করুন যা আপনার জন্য জমা আছে যেমন থাকে উত্তরাধিকার সূত্রে পাওয়া সম্পদ। দৃঢ় বিশ্বাস রাখুন সেই ভালোবাসার মাঝে এমন সুবিশাল শক্তি আর আশীর্বাদ আছে যার মাঝে আপনি যত ইচ্ছা তত ঘুরে বেড়াতে পারবেন এবং সেই ভালোবাসার বৃত্ত থেকে বাইরে পা দেয়ার দরকারই আপনার হবে না। [রেইনার মারিয়া রিলকার উদ্ধৃতি অনুসরণে]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *